বিপিএল এর ক্রিকেট দস্যু

 

 

উড়াইয়া উড়াইয়া মারো রে,ঘুরাইয়া ফিরাইয়া ধুম ধারাক্কা মারো রে,আঁরা চাঁটগাইয়া নওজুয়ান চিটাগাং ভাইকিংস আসছে ওই !
viking শব্দটির অর্থ ‘নরওয়ের সামুদ্রিক দস্যু’ , তবে তামিম-তাসকিন এনামুলরা মোটেও নরওয়ের অধিবাসী নন, সামুদ্রিক দস্যু হওয়া তো বহুদূরের ব্যাপার। তবে হ্যাঁ, এক অর্থে তারাও দস্যু, তবে জলের নন; বরং সমুদ্রবিধৌত চাটগাঁইয়া বিপিএল দল
“Chittagong vikings ” এর ক্রিকেট দস্যু। একসাথে যারা লড়বেন খেলার মাঠে, যেকোনো প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধেই লড়তে প্রস্তুত অকুতভয় এই ‘চাঁটগাইয়া যোদ্ধারা’। আমরা বিগত তিন আসরের মধ্যে সেমিফাইনালিস্ট একবার, রার্নাসআপ একবার। চাটগাঁইয়া ঘরের সন্তান, বোম বোম টাইগার ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল এখনো বিপিএলে শিরোপার স্বাদ পাননি। এবার কি পাবেন?
প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে আগামী ডিসেম্বরে।
তবে শিরোপার স্বাদ পেতে এবার দৃঢ় প্রতীজ্ঞ দেশ সেরা ওপেনার। চট্টগ্রামের এ ক্রিকেটার এবার নিজে বেছে বেছে দল গঠন করেছেন। দলটি এক কথায় ভারসাম্যপূর্ণ। ঘরের ছেলে তামিমকে শুরুতেই দলে রেখে দেয় চিটাগং ভাইকিংস। এ প্লাস গ্রেডের ক্রিকেটার তামিম, পারিশ্রমিক ৫০ লাখ টাকা। গতবারের দল থেকে এনামুল হক বিজয়ও তাসকিন আহমেদকে রেখে দিয়েছে টিম ম্যানেজম্যান্ট।দেশি ক্রিকেটারদের মধ্যে আব্দুর রাজ্জাক, জহুরুল ইসলাম অমির ওপর ভরসা রেখেছে চিটাগং। তরুণ শুভাশিস রায়, জাকির হাসান, মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামকে দলে নিয়েছে চাটগাঁইয়ারা। গতবার দল না পাওয়া লেগ স্পিনার জুবায়ের হোসেন লিখনকে এবার দলে নিয়েছে চিটাগং। বিদেশি ক্রিকেটারে স্বয়ংসম্পূর্ণ চিটাগং ভাইকিংস। ওয়েস্ট ইন্ডিজের দানব ক্রিস গেইলকে পেয়েছে চিটাগং তার সহযোগী ডোয়াইন স্মিথ ও আছেন ভাইকিংসে। সেই সঙ্গে শোয়েব মালিক, চতুরঙ্গ ডি সিলভা, মোহাম্মদ নবীকে ও দলে টেনে নিয়েছে চাটগাঁইয়া ভাইকিংস। নিউজিল্যান্ডের গ্র্যান্ড এলিয়ট, পাকিস্তানের ইমরান খান জুনিয়র, জীবন মেন্ডিসকেও নিয়েছে দলটি। তবে অনেকটা অচেনা ক্রিকেটার টাইমাল মিলস। ইংলিশদের হয়ে মাত্র একটি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন বাঁহাতি এ পেসার। তবে ঘরোয়া ক্রিকেটে ৩৫ ম্যাচে নিয়েছেন ৪১ উইকেট। সব মিলিয়ে দলটি এক কথায় ভারসাম্যপূর্ণ।
চিটাগাং ভাইকিংস: তামিম ইকবাল (আইকন),তাসকিন আহমেদ,এনামুল হক,আবদুর রাজ্জাক,শুভাশিস রায়,জহুরুল ইসলাম,নাজমুল হোসেন মিলন,জাকির হাসান,সাকলাইন সজীব,মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম,ইয়াসির আলী চৌধুরী,জুবায়ের হোসেন (বাংলাদেশ);
বিদেশি খেলোয়াড়ঃ ক্রিস গেইল (ওয়েস্ট ইন্ডিজ),ডোয়াইন স্মিথ (ওয়েস্ট ইন্ডিজ),শোয়েব মালিক (পাকিস্তান),চতুরঙ্গা ডি সিলভা (শ্রীলঙ্কা),মোহাম্মদ নবী (আফগানিস্তান),গ্রান্ট এলিয়ট (নিউজিল্যান্ড),ইমরান খান জুনিয়র (পাকিস্তান),জীবন মেন্ডিস (শ্রীলঙ্কা),টাইমাল মিলস (ইংল্যান্ড)।
উল্লেখ্য,আইপিএলের নিলামের সঙ্গে খেলোয়াড় ড্রাফটের পার্থক্য আছে। এখানে ভিত্তি মূল্যেই খেলোয়াড়েরা বিক্রি হয়েছেন। বেশি দামে কিনে নেওয়ারসুযোগ ছিল না। শুধু লটারি করে যে দলেরনাম আগে উঠেছে, তাতে নির্দিষ্ট বিভাগ থেকে পছন্দের খেলোয়াড় সবার আগে বেছে নেওয়ার সুযোগ পেয়েছে। এভাবেই চলেছে পুরো প্রক্রিয়া।

দলীয় শক্তি: ৭টি দলের স্কোয়াডের দিকে একবার চোখ বুলিয়ে ২য় বার দেখার আগেই বলে দেয়া যায়, শুধু মাত্র নিজ দলেরই নয়, বরং পুরো বিপিএলের সবথেকে শক্তিশালী ব্যাটিং আক্রমণভাগ ‘চিটাগাং ভাইকিংস’দের। তেমনি বোলিং লাইন আপে পেস-স্পিন-মিডিয়াম, প্রত্যেকটি বিভাগেই যেন তারকা বোলার আর স্পেশালাইজড টি-টোয়েন্টি বোলার দ্বারা সমৃদ্ধ। পেস অ্যাটাকে তাসকিন আহমেদ সাথে থাকবেন ব্রিটিশ উদীয়মান ফাস্ট বোলার টাইমাল মিলস। এছাড়াও তরুণ শুভাশিস রায়, মোহাম্মদ শহীদুল ইসলামকে আর স্পিন আক্রমণে ক্যাপ্টেন তামিম পাচ্ছেন দেশসেরা স্পিনার রাজ্জাক,জোবাইয়ের, সাকলাইন সজীব স্পিন অ্যাটাক নিয়ে স্বস্তিতেই রাখছেন ভাইকিংস অধিনায়ক । আর মাঝের ওভারগুলোতে প্রতিপক্ষের রানের গতি টেনে ধরতে ইমরান খান জুনিয়র পেস বোলিংটাও কাজে দিবে। ওদিকে ব্যাটিং সাইড নিয়েও মহাখুশি। টি-টোয়েন্টির স্পেশাল ব্যাটসম্যান দিয়ে ঠাসা যে ভাইকিংস স্কোয়াড। ওপেনিং জুটিতে নামবেন জাতীয় দলের মারকুটে ব্যাটসম্যান তামিম ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যান ডোয়াইন স্মিথ এরপর একে একে ভাইকিংস ব্যাটিংকে উজ্জ্বল করবেন এনামুক হক বিজয়, জহুরুল ইসলাম, মোহাম্মদ নবী, গ্রান্ট এলিয়ট,জাকির হাসান মারকুটে একেকজন ব্যাটসম্যান।উইকেটের পেছনে গ্লাভস হাতে দাঁড়াবেন আনামুল হক বিজয় অথবা জজহরুল ইসলাম।
সম্ভাব্য দূর্বলতা: আপাতদৃষ্টিতে ব্যাটিং থেকে বোলিং একটু দূর্বল চিটাগাং ভাইকিংসের। আর তেমন সমস্যা নেই চাটগাঁইয়া দলের।

এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সাবেক ব্যাটসম্যান এবং বিসিবির নির্বাচিক আকরাম খান দলটির মেন্টরহিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। এছাড়াও ডিবিএল গ্রুপের ম্যানেজার ও ভাইকিংস মালিক আবদুল ওয়াহেদ সার্বক্ষণিক তার দলের পাশে থেকে সমর্থকদের মনে প্রেরণা যুগিয়ে যাচ্ছেন। চিটাগাং ভাইকিংস গ্রুপ পর্বে ৬টি প্রতিপক্ষের বিপক্ষে মোট ১২ টি ম্যাচ খেলবে। এরমধ্যে ৮টি অনুষ্ঠিত হবে ঢাকায়, বাকি ৪টি চট্টগ্রামে।

চিটাগাং ভাইকিংস বিপিএল-২০১৬ ম্যাচ সিডিউল:-
,
ঢাকা পর্ব :-
,
১ম ম্যাচ, ৮ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম কুমিল্লা;
মিরপুর, ২ টা।
,
২য় ম্যাচ, ৯ নভেম্ভর – চিটাগাং বনাম রংপুর;
মিরপুর, ৭ টা।
,
৩য় ম্যাচ, ১২ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম খুলনা;
মিরপুর, ২ টা।
,
৪র্থ ম্যাচ, ১৪ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম বরিশাল;
মিরপুর, ২ টা।
,
চিটাগাং পর্ব:-
,
৫ম ম্যাচ, ১৭ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম ঢাকা;
চট্টগ্রাম, ২ টা।
,
৬ষ্ট ম্যাচ, ১৮ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম রাজশাহী;
চট্টগ্রাম,২ ৩০ টা।
,
৭ম ম্যাচ, ২১ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম কুমিল্লা;
চট্টগ্রাম,৭টা।
,
৮ম ম্যাচ, ২২ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম বরিশাল;
চট্টগ্রাম, ৭টা।
,
ঢাকা পর্ব:-
,
৯ম ম্যাচ, ২৭ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম রংপুর;
মিরপুর,৭টা।
,
১০ম ম্যাচ, ২৯ নভেম্বর – চিটাগাং বনাম খুলনা;
মিরপুর,৭টা।
,
১১তম ম্যাচ, ২ ডিসেম্বর – চিটাগাং বনাম ঢাকা;
মিরপুর,৭ ১৫ টা।
,
১২তম ম্যাচ, ৩ ডিসেম্বর – চিটাগাং বনাম রাজশাহী;
মিরপুর,৭টা।

চিটাগাং ভাইকিংসের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট : www.chittagongvikings.com
ভাইকিংস দল নিয়ে চাটগাঁইয়া/আমরা খুব আশাবাদী তাইতো আত্মবিশ্বাসী ভাইকিংসদের থিম সং-এ বলা হচ্ছে-উড়াইয়া উড়াইয়া মারো রে,ঘুরাইয়া ফিরাইয়াধুম ধারাক্কা মারো রে,আঁরা চাঁটগাইয়া নওজুয়ান চিটাগাং ভাইকিংস আসছে ওই !
#ChittagongVikings
#CTGVikings
#LoadingBoddas 

 

লেখক –  Md Shahjahan Islam

Leave a Reply