জমেছে ঢাকা লীগ

ঢাকা লীগে এবার সব দলই লড়ছে সমান তালে। কেউ কাউকে ছাড় দিচ্ছে না। আজকে জয় পেয়েছে কলাবাগান ক্রিড়া চক্র, প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ও খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সংস্থা।

কলাবাগান ক্রিড়া চক্র ১০ রানে জিতেছে ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাবের বিপক্ষে। প্রথমে ব্যাট করে কলাবাগান ক্রিড়া চক্র ২৫৯ রান করে । কলাবাগানের হয়ে মেহরাব হোসেন ৬৩, তুষার ইমরান ৫৬, তাসামুল হক ৪৪ ও মুক্তার আলী করেন ৫২ রান। ভিক্টোরিয়ার হয়ে মনির হোসেন নেন সর্বোচ্চ ২ উইকেট।

জবাবে নাসিরুদ্দিন ফারুকের ৫৮, সাফিউল হায়াতের ৬৪ ও মইনুল ইসলামের ৭৫ এর সুবাদে ২৪৯ রানে থামে ভিক্টোরিয়ার ইনিংস। কলাবাগানের হয়ে আবুল হাসান, মুক্তার আলী ও মাসাকাজ্জা নেন ২টি করে উইকেট।

আরেক ম্যাচে খেলাঘর সমাজ কল্যাণ সংস্থা ৭৭ রানে হারায় পারটেক্স স্পোর্টিং ক্লাবকে। প্রথমে ব্যাট করে করে খেলাঘর সংগ্রহ করে ২৮৯ রান। খেলাঘরের হয়ে রবিউল ইসলাম ৩৪ অমিত মজুমদার ১০১ ও নাজমুল সাদাত করেন ৭৯ রান করেন। পার্টেক্স এর হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেয় জুবায়ের আহমেদ।

জবাবে ইরফান শুক্কুরের ৩৫ সাজ্জাদ হোসেনের ৩৯ ও জুবায়ের আহমেদের ৪৪ রানে ভর করে ২১১ রান করতে সক্ষম হয়। খেলাঘরের হয়ে সাদিকুর রহমান, তানভীর ইসলাম ও আরিফুল ইসলাম তিনটি করে উইকেট নেয়।

তবে দিনের সবচেয়ে মজার ম্যাচটাই ছিলো মোহামেডান ও প্রাইম ব্যাংকের ম্যাচটি। তামিম, সাব্বিরের রান করা থেকে রুবেল আল আমিনদের ক্ষুরধার বোলিং।

প্রথমে ব্যাট করে শুরুটা ভালো করলেও মাত্র ১৪২ রান নিতে সক্ষম হয় তামিমের মোহামেডান। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৬ রান। তাছাড়া রহমত শাহ করেন ২৪ রান। প্রইম ব্যাংকের হয়ে আল-আমিন হোসেন জুনিয়র নেন ৫টি উইকেট। তাছাড়া আল আমিন ৩টি ও রুবেল হোসেন ৯ ওভারে ১৫ রানে নেন ১উইকেট।

জবাবে বৃষ্টি বাগরা দিলে ৪১ ওভারে ১৪৯ রানের টার্গেট পায় প্রাইম ব্যাংক। জবাবে সাব্বির রহমান ও তাইবুর রহমানের ব্যাটে ৭ উইকেটে জয় পায় প্রাইম ব্যাংক। সাব্বির ৭৮ ও তাইবুর ৪২ রান করে।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফির দল ঘোষনা করেছে কাল। আর দলে সিলেক্টেড সকলেই পারফর্ম করছে সমান তালে। তাই একাদশ সিলেক্ট করতে যে কোচ ক্যাপ্টেনকে বিড়ম্বনায় পরতে হবে তা বলাই যায়। চলতে থাকুক এই মধুর বিড়ম্বনা।

Leave a Reply