কেমন আছেন ফিল হিউজ?

স্বর্গের ক্রিকেট টীমটা অনেক শক্তিশালী হয়ে উঠছে আস্তে আস্তে। বৃদ্ধদের সাথে সাথে এখন তরুনরাও যে যোগদান করছে সেই দলে।

অস্ট্রেলিয়া ও দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট দেখতে বসেছেন সবাই। হঠাৎ ব্রাডম্যান বলে উঠলো ফিল তোকে খুব মিস করছি এই দলে, বলেই তাকালো ফিল হিউজের দিকে। ফিলও তাকিয়ে আছে তাদের দলের সবচেয়ে সেরা খেলোয়ারের দিকে। ফিল হিউজ থাকলে হয়ত আজ এই দলের অধিনায়ক হতেন। প্রিয় বন্ধু ওয়ার্নার এর সাথে হাতে হাত মিলিয়ে ম্যাচ জেতাতেন।

নিয়তি তা হতে দিলনা, ব্রাডম্যান ভাবছেন। হঠাৎ ফিল এর কথায় সম্মতি ফিরে পেলেন ব্রাডম্যান। ফিল বলছে দেখেন খাজা ছেলেটা কি খেলছে, বলেই গলা ধরে গেলো ফিলের। পিছন থেকে রানা বলে উঠলো কাদিস না ভাই আমাদের কপালটাই খারাপ। হঠাৎ গ্রিনিজ এসে বললো ফিলকে তো আজই আমরা স্বাগতম জানিয়েছিলাম। তখন সবার মনে পরে গেলো সেই দুর্ধর্ষ ঘটনাটা। ভেসে উঠছে সবার চোখে শন অ্যাবটে বাউন্সারটি এসে লাগছে ফিলের কাধে একটু দাড়িয়ে থেকে মাটিতে লুটিয়ে পরলেন হিউজ। দৌড়ে এলেন অ্যাবাট, ওয়ার্নারসহ সবাই। নেয়া হলো হাসপাতালে কিন্তু শেষ রক্ষাটা হলো না। বাচাতে পারলো না ফিলকে।

এরপরই স্বর্গের সবাই মন খারাপ করে বসে আছে। সবার চোখে জল এসে গেছে। ফিল উঠে চলে গেছে কেউ খেয়াল করেনি। হঠাৎ রানার চোখে পরলো ফিল নেই। সেও উঠে পরলো। ফিলকে খুজে বের করে তার সাথে বসে বললো ওই দেখো বন্ধু (সাকিবকে দেখিয়ে) আজ যদি আমি থাকতাম তবে হয়ত ওর মত খেলতাম। বলেই হেসে ফেললো ২জন।

ক্রিকেটের যত আক্ষেপ আছে তাদের ১টা এই ফিল হিউজ। ফেব্রুয়ারির ২৬ তারিখ ২০০৯ সালে অভিষেক হয় তার আর শেষটা হয় মর্মান্তিক ভাবে ২০১৪ সালের ২৭ নভেম্বরে। ২৬ টেস্টে করেন ১৫৩৫ রান। আর ২৫ ওয়ানডেতে ৮২৬ রান করেন। এটা আসলে ফিল হিউজকে প্রমান করার জন্য যথেষ্ঠ নয়। ফিল হিউজই একমাত্র খেলোয়ার যাকে আজীবন অপরাজিত থাকার সম্মাননা দিয়া হয়েছে।

ক্রিকেট বিশ্ব মিস করেবে একজন ফিল হিউজকে। তার সেই হাটু গেরে মারা কাভার ড্রাইভগুলো।

বেঁচে থাকো ফিল হিউজ সবার অন্তরে।

Leave a Reply