দ্যা প্রিন্স অফ ক্রিকেট পিচ – কুমার শ্রী দুলিপসিংজি।

কুমার শ্রী দুলিপসিংজি, জন্ম নিয়েছিলেন ১৩ই জুন ১৯০৫। অবিভক্ত ভারত বর্ষের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় মানা হয়ে থাকে তাঁকে। জন্ম নিয়েছিলেন ভারতের বিখ্যাত রাজ পরিবারে। তার চাচা ছিলেন প্রিন্স রণজিৎসিংজি। ব্রিটিশ ভারতের ছোট্ট একটি ষ্টেট নাওয়ানগর এর রাজপরিবারের গৌরবময় রক্তের ধারা যোগ্য উত্তরাধিকারী হিসাবেই এই পৃথিবীতে আসেন তিনি। তার চাচা প্রিন্স রণজিৎসিংজির কথা একটু বিশেষভাবে উল্লেখ করতেই হয়। তার কারনেই ব্রিটিশ ভারতে ভারতীয়রা ক্রিকেট খেলার সুযোগ পায় সেই সময়। বর্তমান ভারতের সবচেয়ে বড় আভ্যন্তরীণ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট রঞ্জি ট্রফি তার নামেই নামকরণ করা হয়।

ছোট বেলা থেকেই চাচা গ্রেট রঞ্জি ছিলেন তার হিরো, মেন্টর এবং কোচ। চাচার হাত ধরেই ক্রিকেটে পদার্পণ করেন তিনি। অসুস্থতার জন্য অবশ্য নিজের ক্রিকেট ক্যারিয়ার বেশি দূর নিয়ে যেতে পারেন নি। মাত্র আট বছরের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে তিনি যেটুকু অর্জন করেছেন তা অবশ্য অনেকের জন্যই শুধুই স্বপ্ন। ২০৫ টি প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেট ম্যাচে করেছেন ১৫৪৮৫ রান। যার মধ্যে শতক রয়েছে ৫০ টি, অর্ধ শতক ৬৪ টি।

তার খেলা দেখে মুগ্ধ হয়ে এমসিসি এর তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বলেন, “In natural gifts of eye, wrist and footwork he is certainly blest far above the ordinary measure… there is no doubt about the judgment and certainty with which he takes toll of straight balls of anything but the most immaculate length. His late cutting is quite beautiful and there is a certain ease and maturity about all his batting methods that stamps him as of a different class from the ordinary school batsman.”

১২ টি টেস্ট ম্যাচেও অংশ নেন তিনি। আশ্চর্যজনক বিষয় হল টেস্ট ক্রিকেটে ভারত এর হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা হয় নি তার। ১২ টি টেস্ট তিনি খেলেছেন ইংল্যান্ডের হয়েই। ১৯২৯ সালে সাউথ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক হয় তার। মাত্র ১২ টেস্টেই তার সংগ্রহ ৯৯৫ রান। সর্বোচ্চ স্কোর ১৭৩ রান।

১৯৫৯ সালের ৫ ই ডিসেম্বর ৫৪ বছর বয়সে ইহলোক ত্যাগ করেন তিনি। অসম্ভব মেধাবী এই ক্রিকেটার এর মৃত্যু দিবসে ম্যানিয়াক্স পরিবারের পক্ষ থেকে জানাই শ্রদ্ধা।

Leave a Reply