রংপুরের দারুন জয় , ছন্দপতন বরিশালের

রংপুরের অধিনায়ক নাইমের বিপক্ষে টসে জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন বরিশালের কাপ্তান মুশফিকুর রহিম৷ রংপুরের ব্যাটসম্যানদার মনোভাব মনে হয় একটু অাক্রমনাত্রক মনোভাবী ছিলো৷ তাইজুলের করা তৃতীয় ওভারে রংপুরের সংগ্রহ ছিলো বিনা উইকেটে ২১ রান৷ কিন্তু সেই ওভারের চতুর্থ বলেই সৌম্ম সরকারকে বিভ্রান্ত করে, মুশফিকের সহায়তায় স্ট্যাম্পিং করেন তাইজুল৷
ওয়ান ডাউনে নেমে অপর প্রান্তে রানের চাকা সচল রাখেন মোহাম্মদ মিথুন৷ ইনিংসের পঞ্চম ওভারে অাবারো তাইজুল অাঘাত হানে৷ এবার আরেক ওপেনার মোহাম্মদ শেহজাদকে ফেরান তাইজুল, তালুবন্দি করেন শাহরিয়ান নাফীস৷
রান রেট ধরে রেখে ঝড় তুলানো দূর্দান্ত ব্যাটিং করে নিজের অর্ধশতক তুলে নেন মিথুন চৌধুরি৷ দলীয় ১২৪ রানে যখন থিসারা পেরেইরার বলে বোল্ড হোন তখন ৪৪ বলে ৬২ রানের পাশাপাশি স্টাইক রেটটাও দারুন ছিলো (১৪০.৯১)৷ শহীদ অাফ্রিদির ১৭ তম ওভারের প্রথম বলে আউট হয়ে সাজঘরে ফেরেন৷ কিন্তু ফেরার আগে ১০ বলে ২২ রানের একটি গুরুত্বপূর্ন ইনিংস খেলেন৷ শেষদিকে পেরেইরা এবং এমরিতের নিয়ন্ত্রিত বোলিং করার ফলে ১৭৫ রান তুলতে সক্ষম হয় ৬টি উইকেট হারিয়ে৷

জবাবে ব্যাট করতে নেমে, ইনিংসের প্রথম বলেই দিলশান মুনিবিরাকে অাউট করে প্রথম ধাক্কাটা দেন সোহাগ গাজি৷ গোল্ডেন ডাক করে মুনিবিরা যাবার পর, শাহরিয়ান নাফীস নামেন দলের হাল ধরতে৷ কিন্তু ৯ বলে ১২ রান করার পর সোহাগ গাজীর বলে স্ট্যাম্পিং হয়ে সাজঘরে ফিরে যান নাফীস৷ দলীয় অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম ব্যাট হাতে মাঠে নামেন৷ কিন্তু ৮ বলে ১১ রান করে শাহরিয়ান নাফীসের মতো স্ট্যাম্পিং এর স্বীকার হয়েই অাউট হয়ে যান মুশফিক৷
৭ ওভারে ৪৮ রান করে ৩ উইকেট খুইয়ে যখন ধুকছে বরিশাল হাল ধরতে নামেন নাদিফ চৌধুরি৷ অপর প্রান্ত অাগলে রাখেন এই অাসরে প্রথম ম্যাচ খেলা জীবন মেন্ডিস৷ ২৪ বলে ৪১ রান করে দূর্দান্ত ইনিংস খেলে অাফ্রিদির বলে ক্যাচ পরিণত হোন৷ দুই লঙ্কান পেরেইরা অার মেন্ডিসের ওপর ভর করে জয়ের স্বপ্ন বুনছিলো বরিশাল৷ কিন্তু অাফ্রিদি এসে জীবন মেন্ডিসকে ফিরিয়ে স্বপ্নটাতে ফাটল ধরিয়ে দেন৷ শেষ ওভার পেরেইরা অন্যদের নিয়ে চেষ্টা করেও পারেননি জিতাতে৷

১৮ তম ওভারে রুবেলের দুই বলে এমরিত আর হায়দারকে ফিরিয়ে জয়ের প্রান্তে নিয়ে আসেন রংপুরকে৷ তবুও পেরেইরা অপর প্রান্তে অবিচল ছিলেন৷ কিন্তু পারেননি পেরেইরা, পারেনি বরিশাল৷ মাত্র ১টি বল খেলতে পারেন পেরেইরা অপর প্রান্তের রাব্বি তাইজুল-অাল আমিনের, রান আউট তারপর স্ট্যাম্পিং আবারও রান অাউট হবার মাধ্যমে অল আউট হয়ে যায় বরিশাল এবং ১২ রানে চট্টগ্রাম পর্বে দারুন শুরু হয় রংপুরের৷
ম্যান অফ দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হোন মোহাম্মদ
মিথুন!

Leave a Reply