আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বাংলাদেশের জয়

নিজ দেশের প্রশংসা শুনতে কার না ভালো লাগে! আর সেই স্তুতি বাক্য যদি আসে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম এবং সাবেক কিংবদন্তী ক্রিকেটারদের কাছ থেকে তাহলে সোনায় সোহাগা! বাংলাদেশ ক্রিকেট নিয়মিতভাবেই আসছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে। তবে এই আসাটা নেতিবাচক কারণে হয়। সংবাদ শিরোনামে জায়গা পাচ্ছে ইতিবাচক কারণে। নিজেদের ঘরের মাঠে ক্রিকেটের অন্যতম পরাশক্তি ইংল্যান্ডকে হারিয়ে এসেছিল সংবাদে। নিউজিল্যান্ড এবং ভারত সফরে উজ্জ্বল থাকলেও জয়ের দেখাটা পায়নি। শ্রীলংকা সফরে লংকানদের হারিয়ে আবারো উঠে এসেছে গণমাধ্যমের উল্লেখযোগ্য অবস্থানে। বাংলাদেশের জয়ের প্রতিক্রিয়া কেমন ছিল একটু দেখে নেয়া যাক!

শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ড বাংলাদেশের জয়ে প্রশংসা করে টুইট করেছে।

লংকান কিংবদন্তী কুমার সাঙ্গাকারা বাংলাদেশের জয়ের পর আক্ষেপ করে লিখেছিলেন, যদি সিরিজ নির্ধারণ করার জন্য আর একটি টেস্ট থাকত! বাংলাদেশের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সম্মান এভাবেই দিয়েছেন তিনি।

লংকান আর এক জীবন্ত কিংবদন্তী মাহেলার মতে লংকানরা খারাপ খেলেনি বরং বাংলাদেশ তাঁদের চেয়ে বেশি ভালো খেলেছে।

সাবেক লংকান ক্রিকেটার পারভেজ মাহরুফ ভুলেন নি বাংলাদেশকে অভিনন্দন জানাতে।

অভিনন্দন জানিয়েছেন লংকান কিংবদন্তী সনাথ জয়াসুরিয়া।

বাংলাদেশের উত্থান নিয়ে লিখেছিলেন রাসেল আর্নল্ড।

ডিন জোন্স এর টুইট আমাদের আনন্দে ভাসাতে যথেষ্ট।

বাংলাদেশের শুভাকাঙ্ক্ষী ইয়ান পন্ট কি আর টুইট না করে থাকতে পারেন!

আইপিএল এর দল কোলকাতা নাইট রাইডার্সও জানিয়েছে অভিনন্দন।

পিছিয়ে ছিল না পিএসেল এর দল পেশোয়ার জালমিও!

প্রতিষ্ঠিত সংবাদপত্রের পাতাতেও ছিল বাংলাদেশ বন্দনা। বিবিসিতে ও!

অব্যাহত থাকুক বাংলাদেশ ক্রিকেটের অগ্রযাত্রা! সংবাদপত্রের পাতাগুল ভরে উঠুক বাংলাদেশ ক্রিকেটের স্তুতি বাক্যে!

ম্যানিয়াক্স ডেস্ক
ক্রিকেট ভালোবাসি, কেননা বাংলাদেশকে ভালোবাসি।

Leave a Reply