নিউজিল্যান্ডের সাথে তামিমের অর্জন।

নিউজিল্যান্ডের সাথে টেস্ট ক্রিকেটে নিজের জাত ঠিকই চিনিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশের সেরা ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল খান। ২০০৮ সালে ৪ জানুয়ারি নিউজিল্যান্ডের ডোনেডিনে শুরু হওয়া প্রথম টেস্ট দিয়ে টেস্ট ক্রিকেটে নিউজিল্যান্ড যাত্রা শুরু হয় তামিমের। প্রথম ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ৯টি চারের মাধ্যমে করেছিলেন ৫৩ রান। যেটি ছিল নিউজিল্যান্ডের সাথে প্রথম অর্ধশতক। ঐ টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ১২টি চার ও একটি ছক্কার সুবাদে করেছিলেন ৮৪ রানের উজ্জ্বল এক ইনিংস।

একই বছর ১২ জানুয়ারি শুরু হওয়া দ্বিতীয় টেস্টে প্রথম ইনিংসে ২ টি চারের সাহায্যে মাত্র ১৫ রানে আউট হন তামিম।

২০০৮ সালে বাংলাদেশ খেলতে আসে ব্লাকক্যাপসরা। ঐ বছর ১৭ অক্টোবর শুরু হওয়া চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে প্রথম ইনিংসে ২টি চারের সাহায্যে তামিম করেছিলেন মাত্র ১৮ রান। দ্বিতীয় ইনিংসে কিছুটা ভাল করেন এই বাম হাতি ব্যাটসম্যান।তিনি ৫টি চারের সাহায্যে করেছিলেন ৩৩ রান।

২৫ অক্টোবর চট্টগ্রামের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে তামিম করেছিলেন ২ রান, কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে ২ চারের সুবাদে ব্যাট থেকে আসে ২৪ রান।

২০১০ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া নিউজিল্যান্ডের হ্যামিলটনে একমাত্র টেস্টের প্রথম ইনিংসে ব্যাট থেকে ভালই সুবিদা পায় টাইগাররা। তিনি ১১ টি বাউন্ডারির মাধ্যমে ৬৮ রানের এক জাঁকজমক ইনিংস খেলেন। উক্ত টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট হাতে মাঠে নামেন এবং ১টি ওভার বাউন্ডারি ও ৫টি বাউন্ডারির সাহায্যে করেন ৩০ রান।

২০১৩ সালে বাংলাদেশে খেলতে আসে নিউজিল্যান্ড।
৯ অক্টোবর চট্টগ্রামে শুরু হয় সিরিজের প্রথম টেস্ট। প্রথম ইনিংসে কোন রান না করেই আউট হন তামিম। দ্বিতীয় ইনিংসে নিজের নামের মোটামুটি ভাল সুবিচার করেন তামিম। ৮ টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে করেছিলেন ৪৬ রান।

২১ অক্টোবর ঢাকার মিরপুরে শুরু হয় সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট।
প্রথম ইনিংসে অল্পের জন্যে নিউজিল্যান্ডের সাথে টেস্টে প্রথম সেঞ্চুরির হাত ছানি হয় তামিমের। তিনি ১৭টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৯৫ রানের জাঁকজমক এক ইনিংস খেলেন।
দ্বিতীয় ইনিংসে সেই চেনা তামিমকে আবার ফিরে পায় বাংলাদেশ। ৪টি বাউন্ডারির কল্যাণে তামিমের ব্যাট থেকে আসে ৭০ রান।

সালটা ২০১৭!
আজ থেকে শুরু হওয়া দুই টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্ট এর প্রথম ইনিংসে মারকুটে ব্যাট চালালেন তামিম।
উজিল্যান্ডের ওয়েলিংটনে শুরু হওয়া প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ১১ টি বাউন্ডারির সাহায্যে করেছেন ৫০ বলে ৫৬ রানের এক ইনিংস। বৃষ্টি বিঘ্নিত দিন অতিবাহিত হলে ও দ্বিতীয় ইনিংসে আবার ব্যাট হাতে জ্বলে উঠতে পারেন বাংলাদেশের সেরা এই ব্যাটসম্যান।
তামিম ৮ টেস্টে ১৪ ইনিংসে করেন ৫৯৬ রান। যার মধ্যে অর্ধশত ছিল ৬টি, বেস্ট ৯৫ রান।
হয়তো তামিমের কাছ থেকে চির চেনা নিউজিল্যান্ডের সাথে আর ও ভাল ভাল ইনিংস উপহার পাব আমরা!

Leave a Reply